মানিকগঞ্জে নিরাভরণ থিয়েটারের মহড়া কক্ষে আগুন

শহিদ রফিক অঞ্চল (মানিকগঞ্জ):
মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলায় ‘নিরাভরণ থিয়েটার’ এর মহড়া কক্ষে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার একটি কক্ষে মহড়া করত এ নাট্যদলটি।

‘নিরাভরণ থিয়েটার’ এর সভাপতি সাইফ সুজন জানিয়েছেন, গত ১৩ এপ্রিল ২০২১ উপজেলা প্রশাসন থেকে আমাদের জানিয়েছে আগুন লাগার ঘটনাটি।” আগুনে নাটকের প্রপস, সেটসহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদি পুড়ে গেছে। বিষয়টি নিয়ে থানায় কোনো অভিযোগ করা হয়নি বলেও জানান তিনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুনা লায়লা বলেন, “রুমটিতে আনসার সদস্যদের থাকার জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ জন্য নিরাভরণ থিয়েটারকে বলা হয়েছে, রুমের চাবি দিয়ে দিতে। তারা চাবি দেয়ার পর গত ১৩ তারিখে রুমের দরজা খুলে দেখা গেছে, ভেতরের ফ্লোরে আগুনের ঘটনা ঘটেছে। কবে আগুন লেগেছে, বলা যাচ্ছে না।” এখন রুমটিতে বর্তমানে আনসার সদস্যদের থাকার ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলেও জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

নাট্যদলটির প্রতিষ্ঠাতা ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষক আনন জামান ফেসবুকে লিখেছেন, “নিজের হাড় পোড়ার মতোই দুঃসংবাদ। কে বা কারা ( অভিশপ্ত আততায়ী) নিরাভরণ থিয়েটারের তিনটি নাটকের সেট- প্রপস -মিউজিক হ্যান্ড পুড়িয়ে দিয়েছে। উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার অস্থায়ী কার্যালয়ে দীর্ঘ এগারো বছর ধরে দলীয় কার্যক্রম ও নাটকের মহড়া করে আসছিল নিরাভরণ থিয়েটার। তাদের গবেষণামূলক প্রযোজনা বালিকা ও স্বর্নপশম ভেড়ার নাট্য, সামন্তনথি, জুঁইমালার সইমালা বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মূল হল, পরীক্ষণ হল, স্টুডিও থিয়েটার হলসহ ফরিদপুর, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, সাভার, সিরাজগঞ্জে দর্শকপ্রিয় প্রদর্শনী হয়েছে। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যাৎসব, ঢাকা থিয়েটার, মহাকাল নাট্য সম্প্রদায়, পদাতিক নাট্য সংসদ, সাংসদ নাট্য উৎসবে নিরাভরণ থিয়েটারের নাটক দর্শকনন্দিত হয়েছে। নিরাভরণ থিয়েটার ‘জন্ম সাঁঝের সাজকাজ উৎসব’ শিরোনামে ঢাকায় ছয় দিন ব্যাপী জাতীয় নাট্যউৎসবের আয়োজন করে। নিরাভরণ থিয়েটারের পাঁচজন সদস্য থিয়েটার করতেই পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে নাটক বিষয়ে পড়ালেখা করছে। তাদের মধ্যে আছেন কবিতা কিন্নরী – কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়, প্রীত পইরাত- জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, ফুলআরা তিশি সালমা- জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, পার্থ কর্মকার – জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, সাকিল আহমেদ – জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *