Skip to content

প্রবন্ধ

ঢাকা থিয়েটারের নাটক ‘মেডিয়া’: নারীর বিদ্রোহ

রাহমান চৌধুরীগত পরশু শনিবার সন্ধ্যায় হুমায়ুন কবীর হিমু নির্দেশিত এবং ঢাকা থিয়েটার প্রযোজিত মেডিয়া নাটকটা দেখলাম শিল্পকলা একাডেমীতে। প্রাচীন যুগে গ্রিক এই নাটকটি লিখেছেন বিশ্বের সেরা নাট্যকারদের একজন ইউরিপিডিস। নাটকটির বাংলা অনুবাদ করেছেন আব্দুস সেলিম। যানজটের কারণে সাভার থেকে ঢাকা পৌঁছাতে সামান্য দেরি হয়েছিল। নাটকটি মঞ্চস্থ হচ্ছিলো শিল্পকলা একাডেমীর অষ্টম তলায় স্টুডিও থিয়েটারে। নাটক তখন শুরু হয়ে গেছে। দশ বারো মিনিট পরে আমি শিল্পকলা একাডেমীতে পৌঁছেছিলাম সাভার থেকে। ভাগ্য সুপ্রসন্ন,… Read More »ঢাকা থিয়েটারের নাটক ‘মেডিয়া’: নারীর বিদ্রোহ

দুলাল আমাদের পরমবন্ধু!

স্মরণ নাসির উদ্দীন ইউসুফবাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের আরো এক দুলাল লোকান্তরিত হলো। কাজী সাইদ হোসেন দুলালের অকাল প্রয়াণের শোকে আমরা যখন নিমজ্জিত তখন জামালপুর মেলান্দহের শহীদ সমর থিয়েটারের প্রতিষ্ঠাকালীন সাধারণ সম্পাদক আবুল মনসুর খান দুলাল চলে গেলেন চিরকালের জন্য। দুলাল আমাদের পরমবন্ধু! বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের প্রতিষ্ঠাকালীন নিবেদিত কর্মী। সুদীর্ঘকাল দুলাল গ্রাম থিয়েটার আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছে। অনেক সুখ স্মৃতি আমার, তার, আবদুল্লাহ ও ফারাজীর সাথে। সেই কবে দেউলাবাড়ী, টুপকার চরের… Read More »দুলাল আমাদের পরমবন্ধু!

শিল্পবন্ধু কাজী সাইদ হোসেন দুলাল

স্মরণ ইসরাত জেরিনসময় স্রোতে চলে যেতে হয় আমাদের সবাইকে এই পৃথিবীর মায়া ছেড়ে, তবে এই চলে যাওয়াই হারিয়ে যাওয়া নয়। এই গভীর মায়া কুঞ্জে আমরা বেঁচে থাকি আমাদের আপন জনদের মানসপটে আর আমাদের কর্মের ভিতর দিয়ে। কাছের মানুষটার মৃত্যু আমাদের বিবর্ণ করে; তবুও মৃত্যু নামক বহমান এই কঠিন সত্যকে মেনে নিতে হয়। গত ২২ ডিসেম্বর ২০২১ না ফেরার দেশে চলে গেলেন ঐতিহ্যবাহী বাংলা নাটকের গবেষক, লোক সংস্কৃতির ধারক কাজী সাইদ… Read More »শিল্পবন্ধু কাজী সাইদ হোসেন দুলাল

কিভাবে বলি ভালো থাকবেন স্যার

স্মরণ হাবিব জাকারিয়া উল্লাসঅধ্যাপক আফসার আহমদ গতকাল আমাদের ছেড়ে গেলেন। আকস্মিক বলতেই হয়, তেষট্টি খুব বেশি বয়স নয়। মৃত্যুকে মানতে তো কষ্ট হয়, সে হবেই। এই যে, লিখতে গিয়েও মনে হচ্ছে, সত্যি তো? এমন হয়। বিশেষ করে নাট্যকলা বিভাগগুলোতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সম্পর্কের যে প্রবণতার ভেতর দিয়ে যায়, শিল্পমাধ্যম হিসেবে থিয়েটারের প্রভাবটা সেখানে থাকে। থাকাটাই জরুরি। শিল্পের সাথে নানাভাবে জড়িত মানুষদের সেটা বুঝতে কষ্ট হবে না। যা লিখলাম সেটুকুও ব্যক্তিগত প্রসঙ্গ নয়।… Read More »কিভাবে বলি ভালো থাকবেন স্যার

কুসুমের কারিগর

[১৪ জানুয়ারি ২০২১- ‘দৈনিক ফেনী’ পত্রিকায় নাট্যাচার্য সেলিম আল দীনকে নিয়ে প্রকাশিত পিয়াস মজিদ এর প্রবন্ধটি পাঠকদের জন্য গ্রাম থিয়েটার ওয়েব পোর্টালে পুণঃপ্রকাশ করা হলো।] পিয়াস মজিদসেলিম আল দীন আমার শ্রেণিকক্ষের শিক্ষক না কিন্তু ‘স্যার’ ছাড়া অন্য কোনো বিশেষণে তাঁকে ডাকতে পারিনা। এই সমীহ ও শ্রদ্ধা সহজাত; জেরপূর্বক আদায় করা না। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার আগেই পড়েছি তাঁর নাটক ‘প্রাচ্য’। সেই রচনার শেষ পঙক্তি পড়ে তাঁকে মনে হয়েছিল গান্ধীবাদী ‘… Read More »কুসুমের কারিগর

শেখ কামাল : তারুণ্যের প্রতীক

নাসির উদ্দীন ইউসুফবঙ্গবন্ধু তনয় শেখ কামাল ছিলেন তারুণ্যের প্রতীক। তারুণ্যের যে শক্তি, তারুণ্যের যে সাহস, তারুণ্যের যে দৃষ্টির অসীমতা, দিগন্ত পর্যন্ত দেখে ফেলার যে দৃষ্টি-ক্ষমতা এই সকল কিছু শেখ কামালের মধ্যে ছিল। শেখ কামালকে শুধুমাত্র জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সন্তান হিসেবে চিহ্নিত করলে আমরা তাঁর পূর্ণাঙ্গ পরিচয় তুলে ধরতে ব্যর্থ হবো। তিনি একাধারে মুক্তিযোদ্ধা, রাজনৈতিক কর্মী, ক্রীড়া সংগঠক এবং একজন নিষ্ঠাবান সংস্কৃতিকর্মী। এত গুণ একসাথে সহজে দেখা যায়… Read More »শেখ কামাল : তারুণ্যের প্রতীক

নাট্যাচার্য সেলিম আল দীন ও তার নাটকের ভুবন

[১৭ আগস্ট ২০২০- রোয়ার বাংলা পোর্টালে নাট্যাচার্য সেলিম আল দীন নিয়ে প্রকাশিত ইয়াসিন সেলিম এর প্রবন্ধটি পাঠকদের জন্য গ্রাম থিয়েটার ওয়েব পোর্টালে পুণঃপ্রকাশ করা হলো।] ইয়াসিন সেলিম:রবীন্দ্র-নজরুলোত্তর বাংলা সাহিত্যের প্রতিটি শাখাই অনেক সমৃদ্ধ ছিল। ছড়া, কবিতা, ছোটগল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ কিংবা গান- বাংলা ভাষায় রচিত শিল্প-সাহিত্যের প্রায় সব শাখাতেই চিরায়ত বাংলা ও বাঙালির ঐতিহ্য ও জীবনবোধের পরিচয় ছিল প্রকট। কিন্তু শুধু নাটকেই ছিল না এর উপস্থিতি। রবীন্দ্র-নজরুল ছাড়া যারাই বাংলায় নাটক… Read More »নাট্যাচার্য সেলিম আল দীন ও তার নাটকের ভুবন

‘কিত্তনখোলা’ বাঙলা নাটকের নিজস্ব রীতি ও আঙ্গিক প্রতিষ্ঠার প্রথম প্রয়াস

আয়নাল হকভূমিকা :সেলিম আল দীন বাংলা নাটকের নিজস্ব রীতি ও আঙ্গিকের প্রতিষ্ঠাতা। বিভাগোত্তর ভারতবর্ষে প্রবাহিত সাহিত্যকে কতিপয় সাহিত্যিক স্বতন্ত্রতায় ভাস্বর করার প্রয়াস পেয়েছেন। এক্ষেত্রে স্বতন্ত্রতা আনয়নকারী অনন্য এক ব্যক্তিত্বের নাম সেলিম আল দীন (১৯৪২-২০০৮)। তিনি বাঙালি জাতির নাড়ির সাথে মিশে থাকা সাংস্কৃতিক পরিচয়কে নাট্যসাহিত্যে পরিস্ফুট করেছেন। তাঁর পূর্বে অবশ্য রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলার হাজার বছরের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের উপাদানসমূহকে নাটকে সংমিশ্রিত করে প্রাচ্য ও প্রাচাত্যের মেলবন্ধন করতে চেয়েছিলেন। তিনি ইউরোপীয় নাটক আর… Read More »‘কিত্তনখোলা’ বাঙলা নাটকের নিজস্ব রীতি ও আঙ্গিক প্রতিষ্ঠার প্রথম প্রয়াস

সেলিম আল দীন: একাত্তর জয়ন্তী

শামীম আহসানবাঙলা নাটকের বাঁক বদলের কারিগর। আমাদের নাটকের নিজস্ব রঙ রূপ রস চলন বলন ঠাট যে আছে তা রবীন্দ্রনাথ দেখিয়েছিলেন তাঁর নাটকে, বলতে হয় সেই পথের একনিষ্ঠ পথিক হয়ে সেলিম আল দীন নির্মান করতে পেরেছিলেন এক স্বতন্ত্র নাট্য ভাষা, শিল্প ভাষা। আমরা উপনিবেশিক আমলের নাটক থেকে বের হয়ে নিজস্ব নাট্য পরিবেশন করার রীতি রেওয়াজ পেলাম তাঁর কাছ থেকে। আমরা বলতে পারি আমাদের নাটকের নিজস্ব আঙ্গিক আছে। যা সেলিম আল দীন… Read More »সেলিম আল দীন: একাত্তর জয়ন্তী

নাট্যসন্ত রামেন্দু মজুমদার

[০৯ আগস্ট ২০১১- দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকায় নাট্যসন্ত রামেন্দু মজুমদার নিয়ে নাসির উদ্দীন ইউসুফ এর প্রবন্ধটি পাঠকদের জন্য গ্রাম থিয়েটার ওয়েব পোর্টালে পুণঃপ্রকাশ করা হলো।] নাসির উদ্দীন ইউসুফ |২২ শ্রাবণ ১৩৪৮ বঙ্গাব্দ, ৭ আগস্ট ১৯৪১ খ্রিষ্টাব্দ রবীন্দ্র মহাপ্রয়াণের শোকে নিমজ্জিত সমগ্র বাংলাদেশ। মেঘনা নদীর কোলে লক্ষ্মীপুর জনপদ এই শোকপ্রবাহে নিমজ্জিত। কিন্তু প্রকৃতির অমোঘ নিয়মে দিন যায় শোকে-কান্নায়, দিন আসে আনন্দ-আশায়। ২৪ শ্রাবণ ১৩৪৮ কবিগুরুর মহাপ্রয়াণের দুই দিন পর শ্রাবণের মেঘবৃষ্টির… Read More »নাট্যসন্ত রামেন্দু মজুমদার